ছবি: সংগৃহীত

১২-১৭ বছর বয়সী শিশুদের পরীক্ষামূলক টিকা বৃহস্পতিবার

ঢাকার একাধিক কেন্দ্রে স্বল্প পরিসরে আগামী বৃহস্পতিবার পরীক্ষামূলকভাবে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়া হবে। প্রথম দিনে ৫০ থেকে ১০০ শিশুকে টিকা দেওয়ার পর তাদের পর্যবেক্ষণ করা হবে।

এরপর আগামী সপ্তাহ থেকে ঢাকা ও অন্য সব সিটি করপোরেশন এবং জেলা পর্যায়ে যাবে শিশুদের টিকা। আজ মঙ্গলবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এর আগে আজ দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, চলতি সপ্তাহেই ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে। আপাতত সারা দেশের জেলা ও সিটি করপোরেশন পর্যায়ে ২১টি কেন্দ্রে স্কুল শিক্ষার্থীদের ফাইজারের টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

এ ক্ষেত্রে ঢাকার আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। এখানে একসঙ্গে অনেক শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া যাবে।

তিনি জানান, স্কুল শিক্ষার্থীদের তালিকা দেবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সেই অনুযায়ী জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে সুরক্ষা অ্যাপসে টিকার নিবন্ধন করা হবে।

বাংলাদেশে এখন ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। ১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকা দেওয়ার ব্যাপারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সরাসরি কোনো নির্দেশনা নেই। সেপ্টেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সময় অপ্রাপ্ত বয়সীদের টিকা দেওয়ার ইস্যুটি সামনে আসে। সে সময় সরকার বলেছিল, বিষয়টি নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে তারা।

বাংলাদেশে এ পর্যন্ত জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়েছে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড, রাশিয়ার উৎপাদিত স্পুনিক ভি, চীনের সিনোফার্ম, ফাইজার ও মডার্নার টিকা।

 

সূত্র- কালের কন্ঠ

পাঠক মন্তব্য

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

error: Content is protected !!