চরসিন্দুর ইউনিয়ন পরিষদের রতন চেয়ারম্যানের ওপর সন্ত্রাসী হামলা আহত ৫

নরসিংদী প্রতিনিধি :

নরসিংদীর পলাশ উপজেলার চরসিন্দুর ইউনিয়ন এর ৪ বারের সফল চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন ( রতন) এর ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে গত মঙ্গলবার ২৬ মে চরসিন্দুর বাজারে সিকদার ফার্মেসীর সামনে , শিবপুর উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের খুপিরচর গ্রামের মাহফুজুল হক টিপুর ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে প্রায় সময় চরসিন্দুর বাজারে দলবল নিয়ে মহড়া দিত।

সেই সুবাদে গত মঙ্গলবার দিন সন্ধ্যায় বাজারের সিকদার ফার্মেসীর ভিতরে গিয়ে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের একদল অস্ত্রধারী চেয়ারম্যান রতনের বিরুদ্ধে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে।

পরে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে ওই ফার্মেসির ভিতরে মাহফুজুল হক টিপুসহ তার সুমন্দি রনি, শ্যলক রানা ,চলনার মমিন, কাওয়াদির রানা, সুমন মোল্লাসহ প্রায় আরও ১০/১২ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের ফার্মেসির ভিতরে আটক করে এলাকাবাসী । ফার্মেসীর ভিতরে থাকা অস্ত্রধারীরা দোকানের ভিতর থেকে গুলি করতে থাকে ।

পরে খবর পেয়ে পলাশ থানার পুলিশ এসে ঘটনাস্থল নিয়ন্ত্রণ করেন। পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়। পরিশেষে নরসিংদী ২ পলাশ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলীপ এসে মাহফুজুল হক টিপু ও তার লোকদেরকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে রতন চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ হলে তিনি জানান পূর্ব থেকে ওত পেতে শিবপুর উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের গ্রামের মাহফুজুল হক টিপু বিভিন্ন সময় দলবল নিয়ে শিকদার ফার্মেসিতে অবস্থান করে আসছে। আমি চরসিন্দুর ইউনিয়ন এর ফেরিওলা হিসাবে মহামারী করোনা ভাইরাসে নিজের জীবন বাজি রেখে জনগণের জানমালের সেবা দিয়ে আসছি ।

আমার উপরে নেহাৎ নেক্কার জনক আঘাতের শিকার হব তা অবিশ্বাস্য, তাছাড়া আমার পাঁচ কর্মী আহত ও সাবেক এমপির ছোট ভাই ছোটন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে আমাকে উদ্ধার করে আমার ছোট ভাই সোহরাব হোসেন বাদী হয়ে পলাশ থানার একটি লিখিত অভিযোগ করেন ।

পাঠক মন্তব্য

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

error: Content is protected !!