নওগাঁয় আরো ৯জন করোনা যুদ্ধে জয়ী

নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম নার্স দীপা আক্তার সহ নওগাঁয় নয়জন করোনা ভাইরাসের সাথে যুদ্ধ করে সুস্থ হয়েছেন। সোমবার রাত ৮টার দিকে জেলা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মঞ্জুর এ মোর্শেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

করোনা জয়ীরা হলেন, জেলার রানীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স দীপা আক্তার, মোসলেমা ও তুহিন রানা, আত্রাই উপজেলার আনোয়ারা বিবি, সাদিক ও সামাদ, মহাদেবপুর উপজেলার আশা ও সুজিত এবং মান্দা উপজেলার সাব্বির আহমেদ। এসময় করোনা জয়ীদের প্রত্যেককে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ফুলের তোড়া উপহার দিয়ে তাদের বিদায় জানানো হয়।

করোনা জয়ী মান্দা উপজেলার দোসতী গ্রামের যুবক সাব্বির আহমেদ বলেন, তিনি মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ল্যাব সহকারী ছিলেন। অন্যদের সাথে গত ২৩ এপ্রিল তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরপর গত ২৯ এপ্রিল তার করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়। অথচ কোন ধরনের উপসর্গ তার শরীরে ছিলো না।

তিনি বলেন, করোনা পজেটিভ আসার পর তাকে মান্দা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে করোনা আইসোলেশনে রাখা হয়। মোবাইল ফোনে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে নিয়মিত যোগাযোগ করা হতো এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে নির্দেশনা দেয়া হতো। সেখানে ফলসহ বিভিন্ন খাবার সরবরাহ করা হতো। প্রতিদিন আদা, লেবু, কালোজিরা, সরিষার তেল, কাঁচা হলুদ ও মধু পানিতে গরম করে ৫/৭ মিনিট করে দিনে ৫/৬ বার ভাপ (বাষ্প) নিতাম। সেই সাথে মেডিসিন চলতো। এভাবে এক সপ্তাহ ধরে তাদেরকে নিয়ম মেনে সেবা করা হয়। গত ৩ মে আবারও নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং ৭ মে রিপোর্ট আসে নেগেটিভ। ৮ মে আবারো নমুনা সংগ্রহ করা হলে সোমবার (১১মে) রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। করোনা পজেটিভ হলেও আমার শরীরে কোন ধরনের উপসর্গ দেখা দেয়নি। আমি এখন সুস্থ।

আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অফিসার ডাঃ রোকসানা হ্যাপি বলেন, মনোবল ঠিক রাখতে করোনা আক্রান্তদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হয়েছিল। তাদেরকে সার্বক্ষণিক স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে দিক নির্দেশনা দেয়া হয়। নিজ নিজ বাড়ি থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারা সুস্থ হয়েছেন। সর্বশেষ তাদের নমুনা নিয়ে পরীক্ষার জন্য পাঠালে রির্পোট নেগেটিভ আসে। এখন তারা সম্পুর্ন সুস্থ।

নওগাঁ ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মঞ্জুর এ মোর্শেদ বলেন, করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়েছিল। নির্দিষ্ট সময় পর তাদের নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে। এখন তারা সম্পূর্ণ সুস্থ। তাদের ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। জেলায় মোট ১০জন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়েছেন।

উল্লেখ্য, জেলায় মোট ৭০ জন ব্যক্তির করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়। এর মধ্যে ১০জন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!