গাজীপুরের মহানগর বাসন এলাকা থেকে অপহৃত শিশু উত্তরা থেকে উদ্ধার, সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার,‌ র‌্যাব-১

গাজীপুর প্রতিনিধি ঃ

গাজীপুরের মহানগর বাসন সড়ক এলাকা থেকে অপহৃত শিশু সাব্বির হোসেন ৬ কে, র‌্যাব-১ এর অভিযানে ১৮ ঘন্টার মধ্যে মুমূর্ষ অবস্থায় রাজধানীর উত্তরা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১।

এ সময় অপহরণের দিন ভিকটিমের বাবার মোবাইল ফোনে অজ্ঞাতনামা নম্বর থেকে ফোন করে জানান তার শিশু সন্তান মোঃ সাব্বির হোসেন তাদের হেফাজতে আছে। তার ছেলেকে নিতে হলে মুক্তিপণ হিসেবে ৫ লক্ষ টাকা দিতে হবে। টাকা না দিলে অন্যথায় অপহরন কারীরা তার ছেলেকে হত্যা করে লাশ গুম করবে বলে জানায়। পরবর্তীতে অনেক খোঁজা খোজির পরে এক পর্যায়ে গত ১০ মে ২০২০ ইং তারিখ এসি সহাকারী পুলিশ কমিশনার (সদর জোন) মোঃ সোহরাব হোসেন এবং বাসন থানার ওসি মোঃ রফিকুল ইসলাম এবং ভিকটিমের পরিবারের পক্ষে থেকে র‌্যাব-১, স্পেশালাইজড কোম্পানী, পোড়াবাড়ী ক্যাম্প, গাজীপুর এর কাছে অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধারের জন্য আইনগত সহায়তা কামনা করেন।

অভিযোগ প্রাপ্ত হওয়ার পর অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার করে র‌্যাব১ এবং অপহরণকারীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-১, স্পেশালাইজড কোম্পানী, পোড়াবাড়ী ক্যাম্প কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন, (জি), বিএন দ্রুততার সাথে ছায়া তদন্ত শুরু করেন এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করেন।

এরই ধারাবাহিকতায়ঃ অদ্য ১১ মে ২০২০ ইং তারিখে ৩ টার সময় র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল জিএমপি গাজীপুর ও রাজধানীর উত্তরার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অবশেষে মুক্তিপণের টাকা লেনদেনের সময় অপহরণকারী চক্রের মূল হোতাসহ ৩ জনকে আটক করেন।
১ মোঃ নাজমুল হুদা@শামীম(২৮), পিতা-মৃত আলী মর্তুজা, মাতা-মমতাজ বেগম, সাং-বেতাতী, থানা ও জেলা-নেত্রকোনা, এ/পি-সাং-বাসন সড়ক (জমির উদ্দিন এর বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা-বাসন, জিএমপি, গাজীপুর, ২। মোঃ নয়ন মিয়া(৩৪), পিতা-মৃত আফজাল হোসেন, মাতা-কুলছুম বেগম, সাং-চয়াহাল, থানা-বারহাট্টা, জেলা-নেত্রকোনা, এ/পি-সাং-মালেকের বাড়ী (নজরুর এর বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা-গাছা, জিএমপি, গাজীপুর, ৩। মোসাঃ সুমা আক্তার(২৫), স্বামী-মোঃ নাজমুল হুদা(২৮), পিতা-আবু মিয়া, সাং-বেতাতী, থানা ও জেলা-নেত্রকোনা, এ/পি-সাং-বাসন সড়ক (জমির উদ্দিন এর বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা-বাসন, জিএমপি, গাজীপুর, ৪। সুরাইয়া আক্তার শিউলি(২৬), স্বামী-মোঃ নয়ন মিয়া(৩৪), পিতা-আবুল কালাম, সাং-চয়াহাল, থানা-বারহাট্টা, জেলা-নেত্রকোনা, এ/পি-সাং-মালেকের বাড়ী (নজরুর এর বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা-গাছা, জিএমপি, গাজীপুর, দেরকে আটক করে।

আটককৃত আসামীদের দেওয়া তথ্যমতে র‌্যাব রাজধানীর উত্তরা এলাকার একটি ফ্ল্যাটের পরিত্যাক্ত গোপন কক্ষ হইতে মুমূর্ষ অবস্থায় অপহৃত ভিকটিম মোঃ সাব্বির হোসেন(০৬), পিতা- মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক, মাতা-আফসানা, সাং-দোয়ারিয়া, থানা-লালপুর, জেলা-নাটোর, এ/পি-সাং-বাসন সড়ক (জমির উদ্দিন এর বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা-বাসন, জিএমপি, গাজীপুর’কে উদ্ধার করে। এসময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ০৪ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। অপহরণকারী চক্রের ২জন ভিকটিমদের সাথে একই বাড়ীতে ভাড়া থাকত। প্রতিবেশী ভাড়াটিয়া মোঃ নাজমুল হুদা @ শামীম ও তার বন্ধু নয়ন মিয়ার পারস্পারিক যোগসাজসে ভিকটিম সাব্বিরকে নিয়ে এক বাসায় লুকিয়ে রাখে এবং তারা স্বাভাবিক কাজকর্ম করে। সন্ধ্যায় তারা ভিকটিমের বাসা পরিবর্তন করে । র‌্যাব অভিযান শুরু করলে রাতে তারা উত্তরার ৯নং সেক্টরের নির্মাণাধীন বাসায় শিশুটিকে লুকিয়ে রাখে এবং ধরা পড়ার ভয়ে হত্যার পরিকল্পনা করে।

আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা একটি সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্রের সদস্য। তারা দীর্ঘ দিন ধরে গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় অপহরণ, চুরি ও ছিনতাইসহ নানাবিধ অপরাধমূলক কাজের সাথে জড়িত। তারা পরস্পর যোগসাজসে মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশ্যে শিশু সাব্বির কে অপহরণ করেছিল বলে স্বীকার করে।

ধৃত আসামীদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা পেশায় গার্মেন্টস কর্মী। তাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল যেকোন উপায়ে বিপুল টাকা উপার্জন করে গাজীপুর শহরে একটি ফ্ল্যাট বাসা ক্রয় করে সুন্দর ভাবে জীবন-যাপন করবে। তাদের এই স্বপ্ন পূরণ করার জন্য তারা এই অপহরণ করেছে বলে স্বীকার করে এবং তারা ধনী পরিবারের শিশুদেরকে টারর্গেট করে উক্ত কার্যক্রম করতে থাকে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!