কেশবপুরে আমাদের খবর কেউ রাখে না কষ্টে আছেন পাদুকা শ্রমিকরা

আবু হুরায়রা রাসেল যশোর জেলা প্রতিনিধি,কেশবপুর শহরজুড়ে বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ীভাবে ফুটপাতের দুপাশ জুড়ে, জুতা রং ও সেলাই করে চলা মানুষগুলো আর ভালো নেই। অভাব-অনটনে দিন কাটছে তাদের, করোনাই যেন সর্বশান্ত করে দিয়েছে তাদের পরিবার।

তাদের জীবন কাটছে কষ্টে তাদের সামনে দিয়ে যেতে গেলে কারণে অকারণে বলছে বাবু আমার কাছে এসে কাজ করেন ১০ টাকা দিলেই হবে। কি করতে হবে, কি প্রয়োজন, কিছুই শুনছেন না। বাবু দিন আর চলে না কিছু একটা করান দশটা টাকা দেন। সরোজমিনে যেয়ে তাদের কাছে জানতে চাইলে।

অমাল, অজিত, খোকন, নরেন, দিলীপ, পরিতোষ, অসিত, গৌড়, রঞ্জিত, স্বদেশ, কৃষ্ণ, বাবুরাম, রামপদ, উজ্জল, তাপস দাসসহ, সকল শ্রমিকরা করোনাই কর্মহীন হয়ে প্রায় দুই মাস কাজ না করে চুলায় আর হাড়ি জলে না। দাদা বাচ্চাদের কথা ভেবে করোনা আমাদের থামাতে পারিনি।

তাই রাস্তায় চলে এসেছি কটা টাকা উপার্জন হলে, কিছু চাল ডাল কিনতে পারলেও বাচ্চাদের একবেলা তো খাওয়াতে পারব। শ্রমিকরা আরও বলেন এখানে প্রায় দুমাস কাজ করতে আসছি না তবু আমাদের খবর কেউ রাখে না।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!