ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিনকে সম্মান জানালেন চিত্রনায়ক ওমর সানী। ছবি : সংগৃহীত

সেই ভিক্ষুককে পা ছুঁয়ে সালাম করতে চান ওমর সানী

ভিক্ষা করে জমানো টাকা ত্রাণ তহবিলে দান করে দিয়েছেন নাজিম উদ্দিন নামের ৮০ বছর বয়সী এক ভিক্ষুক। বিষয়টি জেনে আবেগাপ্লুত হয়ে সেই ভিক্ষুককে বাবা বলে সম্বোধন করেছেন ঢাকাই সিনেমার একসময়ের সুপারস্টার ওমর সানী। এমনকি সেই ভিক্ষুককে পায়ে ধরে সালাম করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন তিনি।

 

নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন চিত্রনায়ক ওমর সানী। ওই ব্যক্তির ছবি যোগ করে ক্যাপশনে ওমর সানী লিখেছেন, ‘যে নাকি মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ভিক্ষা করে, সে দান করছে করোনাভাইরাসের ত্রাণ তহবিলে; শাবাশ বাবা, আপনাকে পায়ে ধরে সালাম করতে চাই, আর কিছু মানুষের নামের ওপর। থাক বললাম না। আমার তো বাবা নেই, তাই অনেক দিন পর বাবা বলে সম্বোধন করলাম।’

সম্প্রতি এই ভিক্ষুকের দান করার সংবাদ প্রকাশিথ হলে মুহূর্তেই তা ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। গত মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে শেরপুরের ঝিনাইগাতীর মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের বাতিয়াগাঁও এলাকায় ইউএনও রুবেল মাহমুদের হাতে জমানো অর্থ তুলে দেন ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিন।

খবরে প্রকাশ, ৮০ বছর বয়সী নাজিম উদ্দিন ভিক্ষা করেই সংসার চালান। নিজের মাথা গোঁজার ঠাঁই বসতঘর মেরামতের জন্য দুই বছর ধরে ভিক্ষা করে সর্বসাকুল্যে ১০ হাজার টাকা জমালেও আরো টাকার প্রয়োজন। আরো কিছু টাকা জমানোর অপেক্ষায় ছিলেন তিনি। কিন্তু নিজের ঘর মেরামত না করে জমানো সর্বস্ব সম্বলটুকু দান করন কর্মহীনদের খাদ্যসহায়তার জন্য খোলা তহবিলে। তিনি ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের গান্ধীগাঁও গ্রামের ইয়ার আলীর ছেলে।

গত রোববার ইউএনও রুবেল মাহমুদের নির্দেশে খাদ্য সহায়তার জন্য স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘দি প্যাসিফিক’ ক্লাবের সদস্য ও স্থানীয় ইউপি সদস্যরা কর্মহীন অসহায় দরিদ্রদের তালিকা প্রণয়নে গান্ধীগাঁও গ্রামে যান। এ সময় ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে তাঁকে ইউএনওর পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী দেওয়ার কথা বলে তাঁর জাতীয় পরিচয়পত্র দেখতে চান। কিন্তু ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিন ওই তালিকায় তাঁর নাম না দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

উল্টো নাজিম উদ্দিন বলেন, নিজের বসতঘর মেরামত করার জন্য দুই বছরে ভিক্ষা করে জমিয়েছেন ১০ হাজার টাকা। এ টাকা স্বেচ্ছায় বর্তমান পরিস্থিতিতে অসহায়দের খাদ্য সহায়তা দেওয়ার জন্য দান করবেন তিনি। পরে মঙ্গলবার ‘দি প্যাসিফিক’ ক্লাবের সদস্য ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ইউএনওর কাছে নিয়ে গেলে জমানো ১০ হাজার টাকা ইউএনওর হাতে তুলে দেন নাজিম উদ্দিন।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!