সাভার বিরুলিয়া জমিদার বাড়ি এখন শুধু স্মূতি।

শহিদুল্লাহ সরকার 
সাভার বিরুলিয়া জমিদার বাড়ীটিতে বাস করতেন রজনীকান্ত ঘোষ। তিনি ছিলেন বিরুলিয়ার বিখ্যাত জমিদার। সুরম্য বাড়ি তার। প্রতি বৈশাখী ও দুর্গাপূজায় দশমী মেলা বসাতেন নিজ বাড়ির আঙিনায়। তবে বাড়ির আঙিনায় না হলেও পাশেই মন্দিরে দূড়গাপূজা এখনো হয়। তবে শোনা যায় জমিদার নলিনী মোহন সাহার কাছ থেকে রজনীকান্ত ঘোষ ৮৯৬০ টাকা ৪ আনি দিয়ে বাড়িটি ক্রয় করেছিলেন।
তুরাগ নদীর সাথেই ছোট একটি গ্রাম বিরুলীয়া৷ এখন সেখানে যেদিকেই তাকাবেন পানি আর পানি। ছোট ছোট নৌকা ভেসে বেড়াচ্ছে। আগে যখন বিরুলিয়া ব্রিজ ছিল না তখন নৌকা করে যেতে হত এই বিরুলিয়া গ্রামে। এখানে অনেক পুরনো একটি বট গাছ রয়েছে। পানির কারণে আমরা যেতে পারিনি। সামনে একটু এগুলেই পরবে গোলাপ বাগান। তবে এখন সেখানে গোলাপ পাবেন না। বর্ষা শেষে শীতে গেলে তখন দেখবেন চারিদিকে গোলাপ আর গোলাপ। তবে তুরাগ নদীর সৌন্দর্য আর বিরুলিয়া জমিদার বাড়ি আপনার সারা সপ্তাহের সব ক্লান্তি মুছে দিতে বাধ্য। অল্প খরচে আপনারা চাইলে কোন এক শুক্রবার ঘুরে আসতে পারেন।
যেভাবে যাবেন :
ঢাকার যেকোন প্রান্ত থেকে চলে আসুন মিরপুর ১। মিরপুর ১ এসে মাজারের সামনেই লেগুনা  ছাড়ে। তাছাড়া বাসে করেও যেতে পারেন। ভাড়া পরবে ২০ টাকা। বিরুলিয়া ব্রিজের সামনে নেমে ব্রিজ পার হলেই দেখবেন বাম পাশে ছোট একটি গ্রাম। হেটে যেতে ১০/১৫ মিনিট লাগবে জমিদার বাড়ি পৌঁছাতে।
বিঃদ্রঃ আমরা যেখানেই ভ্রমণ করি না কেন, সব সময় নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলবো। ভ্রমণে গিয়ে দেখতে পাবেন পুরনো সেই জমিদার বাড়ি।সরেজমিনে গিয়ে দেখতে পাই  বিরুলিয়া গ্রামের মানুষ আগের মতই আছেন। এই গ্রামের মানুষ গুলো সহজ সরল ধর্মিয় প্রানোবান্ধব।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!