যশোরের কেশবপুর উপজেলার ঘোপসানায় স্বামী-স্ত্রীর আত্মহত্যা রেখে গেলেন একমাত্র পুত্র সন্তান

আবু হুরায়রা রাসেল 

কেশবপুর উপজেলার ঘোপসানায় গলায়, ফাঁস নিয়ে স্বামী স্ত্রী আত্মহত্যার করেছে। পুলিশ সূত্রে প্রাথমিকপর্যায়ে জানা গেছে, ঋণের দায়ে জর্জরিত হয়ে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) দিনগত রাতে, উপজেলার ঘোপসানা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন শামীম হোসেন (৩০), ও তার স্ত্রী রেনুকা বেগম (২৫)।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন , সুদখোর কারবারি ও এনজিওর ঋণে, জর্জরিত ছিলেন শামীম হোসেন ও স্ত্রী রেনুকা বেগম। এসব নিয়ে প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকতো, এরই এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার রাতে, নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় রশি পেঁচিয়ে ফাঁস নেন ওই দম্পতি। তাদের চার বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তান সন্তান রয়েছে।
এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, (ওসি) মো. জসীম উদ্দীন সাংবাদিকদের বলেন, সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে, মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য, যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে,
তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ঋণের কারণেই হতাশা ও কলহে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটতে পারে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!