গভীর রাতে গর্ভবতী মাকে হাসপাতাল নিয়ে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করলেন কেশবপুর থানা পুলিশ

যশোর জেলা প্রতিনিধি

যশোরের কেশবপুরে ছাত্রনেতা সবুজ হোসেন নীরবের, ফোনে জানতে পেরে গর্ভবতী মাকে হাসপাতালে নিয়ে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে কেশবপুর থানা পুলিশ। ২২ শে এপ্রিল রাত ১টা ১৫ মিনিটের সময়, পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ড সাবদিয়া গ্রামের, মোস্তফা কামাল (৩০) এর প্রসূতি স্ত্রী ইতি বেগম (২৬), এর হঠাৎ প্রসব বেদনা শুরু হয়। করোনা আতঙ্কে সকল প্রকার যানবাহনের স্বল্পতার কারণে, প্রথমে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি এ্যাম্বুলেন্সের জন্য চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন সরদার, অনেক চেষ্টা করেও কোনো বাহন না পাওয়ায় কারনে, নাসির উদ্দিন ছেলে ছাত্রনেতা  সবুজ হোসেন নীরবকে ঘুম থেকে ডেকে উঠান, এবং বিষয়টি বলেন বাবার কথা শুনে সবুজ ফোন করেন কেশবপুর থানার মানবিক পুলিশ অফিসার এসআই ফজলে রাব্বী কে, ফোন দিয়ে বিষয়টি জানাই। তিনি গুরুত্ব অনুধাবন করে, তাৎক্ষণিক থানার সুযোগ্য অফিসার ইনচার্জ জসীম উদ্দীন স্যারের, অনুমতিক্রমে ৫ মিনিটের মধ্যেই এসআই নাজমুল হোসেন সহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য প্রসূতির বাড়িতে আসেন।

পুলিশ সদস্যরা ইতি বেগম (২৬) কে, পুলিশ ভ্যান যোগে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখানে স্বাস্থ্যের উন্নতি না হাওয়াই স্থানীয় মাতৃমঙ্গল ক্লিনিকে স্থানান্তর করে, সিজারের মাধ্যমে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন, সন্তানের ওজন হয় ৫ কেজি, মা ও সন্তান দুজনেই সুস্থ আছেন।

একজন প্রসূতির জীবন বাঁচাতে, তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এসআই ফজলে রাব্বি, নাজমুল হোসেন, ও পুলিশ সদস্যদের,অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন সরদার, ছেলে বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক সবুজ হোসেন নিরব, ইতি বেগম, মোস্তফা কামাল, ও তাদের পরিবার।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!