বেনাপোল স্টাফ এসোসিয়েশনের অসহায় কর্মচারীদেরকে ৫শত টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ

খোরশেদ আলম :
নোবেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশ সরকার লকডাউন ঘোষনা করায় সারাদেশের ন্যায় যশোর বেনাপোলের সিএন্ডএফ  স্টাফ এসোসিয়েশনের সদস্যরাও বাড়িতে অসহায় হয়ে দিন কাটাচ্ছে।
তাদের কথা চিন্তা করে উক্ত এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ২৫০০ কর্মচারীকে নগদ পাঁচশত টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
সোমবার (২০ শে এপ্রিল) সকাল ১০ টার দিকে বেনাপোল স্টাফ অ্যাসোসিয়েশন ভবনে জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
এ জরুরি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, বেনাপোল সিএন্ডএফ স্টাফ এসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ মজিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাজেদুর রহমানসহ সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদ বলেন, সারা বাংলাদেশে যখন মহামারী নভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে বাংলাদেশ সরকার ললকডাউন ঘোষণা করায় সবপর্যায়ের খেটে খাওয়া মানুষ অসহায় হয়ে বাড়িতে বসে দিন কাটাচ্ছে। সরকারের পক্ষ থেকে ও স্থানীয় সংসদ সদস্যদের পক্ষ থেকে প্রায় সব পর্যায়ের মানুষের সাহায্য সহযোগিতা করা হচ্ছে। কিন্তু আমাদের সদস্যদের কেউ কোনো খোঁজখবর নিচ্ছে না। তাই আমাদের নিজস্ব স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের তহবিল থেকে প্রত্যেক সদস্য কে নগদ পাঁচশত টাকা করে দেওয়া হবে।   তারা আরো বলেন,বাংলাদেশ সরকারের রাজস্ব আদায়ের ক্ষেত্রে আমরাই কাস্টমসকে সব সময় সহযোগিতা করি। কিন্তু এই দুর্দিনে আমাদের পাশে কেউ এগিয়ে আসেনি।
এবিষয়ে বন্দর বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আওয়াল হোসেন দাবী জানান, এই মহামারীতে জনগনের খাদ্য সঙ্কট দূর করতে জননেত্রী মমতাময়ী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক স্ব স্ব সংগঠনকে জনকল্যাণমুখী কাজে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি ।
এসময় আরো বলেন, আসা করি আমরা ঘরে অবস্থান করে করোনার হাত থেকে বাংলাদেশকে মুক্ত করতে সরকারকে সহায়তা করবো ইনশাআল্লাহ ।
তারই ধারাবাহিকতায় আমরা স্টাফ এসোসিয়েশন কতৃক এই ভাতা প্রদানের ব্যবস্থা করছি। তদ্রুপ বেনাপোল বন্দর ব্যাবহারকারী ৭টি সংগঠন, বন্দর ও কাস্টমস কতৃপক্ষ সহ সমাজের বিত্তবান ব্যক্তিদের কাছে আমরা অনুরোধ করবো সবার মতো আমাদের কেউ সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিন।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!