সোনারগাঁও উপজেলা UNO সাইদুল ইসলামের আবেগঘন স্ট্যাটাস ফেসবুকে ভাইরাল

রিপোর্টার মোঃ মামুন আহমেদ;

সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃসাইদুল ইসলামের আবেগঘন স্ট্যাটাস ভাইরাল

আজকের সংবাদ ডেস্কঃ নারায়ণগন্জের সোনারগাঁয়ে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত। উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের হাড়িয়া চৌধুরীপাড়া গ্রামের নিষ্পাপ ১৪ বছরের মাদ্রাসা পড়ুয়া আবু বকর নামের এক  ছাত্রের প্রথম করোনা রোগ সনাক্তের পর সোনারগাঁ উপজেলার অফিসিয়াল ফেসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.সাইদুল ইসলাম। স্ট্যাটাসটি ইতোমধ্যে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে আবেগঘন লাইক ও কমেন্ট করছেন।উপজেলা প্রসাশনকে এই করোনা পরিস্থিতি শক্ত হাতে মোকাবেলা করাই ধন্যবাদ জানিয়েছেন সকলেই।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইদুল ইসলামের ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো।

আজ আমাদের Day-1.

Novel Coronavirus এ আক্রান্ত বৈদ্যের বাজারের আবু বকর নামের ১৪ বছর বয়সের এক কিশোরকে দিয়ে আমাদের শুরু হলো। জানিনা এর শেষ কোথায়!

আবু বকর এর বাবার বুকের ভেতর থেকে ফুপিয়ে উঠা কাঁন্নার শব্দ এখনো কানে বাজছে। ছেলেকে বাঁচাবার জন্য তার মায়ের সকরুন আহাজারি, বুক ভাসানো অশ্রুজল কোন কিছুরই কোন উত্তর দিতে পারিনি আমরা।

“আমার ছেলেটাকে বাঁচান স্যার” -একজন মায়ের এমন কাকুতির কি উত্তর হয় সেটা সত্যি আমার জানা নেই। কি করে বুঝাই এ এক এমনি ভয়ংকর মহাব্যাধি,জল স্থল আর মহাকাশকে পদাবনত করা আমেরিকা ইউরোপও যে এর কাছে মাথা নত করে।

মাত্র ১৪ বছরের এই দূরন্ত ছেলেটি যে কিনা কখনো একা থাকেনি,আজ তাকে একা একটি এম্বুল্যান্স এ পাঠিয়ে দেয়া হলো কুয়েত মৌত্রি হাসপাতালে।

বুক ফেটে যাচ্ছিলো তার মায়ের, বাবার মাথায় যেনো পুরো আকাশ ভেংগে পড়ছিলো!!
আর কি কখনো এই লক্ষ্মী ছেলেটা ফিরবে ঘরে? মায়ের কাছে ধরবে বায়না? আর কি কোনদিন দেখা হবে আবু বকরের সাথে তার বাবার, তার মায়ের??
হয়ত….হয়তবা না…

হাত জোড় করে অনুরোধ করছি প্রিয় সোনারগাঁবাসী ঘরে থাকুন…সৃষ্টিকর্তাকে ডাকুন…আপনার প্রিয়জনের জন্য হলেও…

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!