কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার শফিউল্লাহকাটা ১৬ নং ক্যাম্পে দীর্ঘদিনের

মসজিদ ভেঙ্গে এনজিও ব্রাকের অফিস নির্মাণের ঘটনায় তোলপাড়

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার শফিউল্লাহকাটা ১৬ নং ক্যাম্পে দীর্ঘদিনের মসজিদ ভেঙ্গে এনজিও ব্রাকের অফিস নির্মাণের ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এনিয়ে স্থানীয়দের উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় শফিউল্লাহকাটার স্থানীয় লোকজন মঙ্গলবার সকালে ব্রাক ও ক্যাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে।
শফিউল্লাকাটার স্থানীয় বাসিন্দা জাফর আলমের ছেলে ও গ্রাম কমিটির সভাপতি
একেএম সাইফুল ইসলাম বলেন, শফিউল্লাহকাটা এলাকায় ১৪৩টি স্থানীয় পরিবার রয়েছে। এই পরিবার গুলো রোহিঙ্গা না আসার পূর্ব থেকে সেখানেনবসবাস করে আসছে। রোহিঙ্গা আসার পর এই পরিবার গুলো দীর্ঘদিনের ক্ষেত-খামারসহ কৃষি জমি হারিয়েছে। মানবতা দেখিয়ে তাদের বসতবাড়ীর আঙ্গিনায় রোহিঙ্গাদেন আশ্রয় দিয়েছে। কিন্তু বর্তমানে রোহিঙ্গাদের কারনে তারা বিভিন্ন হয়রানী, হুমকি-ধমকি শিকার হচ্ছে। সে জানায়, স্থানীয়দের দীর্ঘদিনের ধর্মীয় অনুশাসনের একমাত্র স্থান মসজিদ। সেই মসজিদ ভেঙ্গে এনজিও সংস্থা ব্রাক অফিস নির্মাণের ষড়যন্ত্র করছে। সে আরো জানায়, কেয়ার নামের এনজিও সংস্থার গর্তে পড়ে স্থানীয় লোকের একটি গরু মারা যায়, বিষয়টি ক্যাম্প ইনচার্জ সহ সকলকে জানানোর পরেও তার এখনো ক্ষতিপূরণ দেয়নি। শফিউল্লাহকাটা এলাকায় একজন স্থানীয় লোক বেঁচে থাকতে ব্রাকের এই ষড়যন্ত্র কখনো সফল হবেনা। বিভিন্ন দাবী-দাওয়া স্থানীয় নারী-পুরুষ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে বলে সে জানায়।
এব্যাপারে জানার জন্য শফিউল্লাহকাটা ১৬ ক্যাম্পের ইনচার্জ (সিআইসি) কাজী ফারুকের নিকট জানার জন্য ফোন করা হলে তিনি মিটিংয়ে আছেন বলে ফোন কেটে দেন।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!