গোবিন্দগঞ্জে কাঁচাবাজার মনিটরিংয়ে ইউএনও জরিমানা ৬২ হাজার টাকা

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ
দেশে করোনা ভাইরাসের অজুহাতে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার পন্যের মুল্য তালিকা না থাকার কারনে এবং চাল ও পেঁয়াজের দাম বেশি রাখার অভিযোগে কাঁচাবাজারের পাইকারী ও খুচরা ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে চালের বস্তা প্রতি সাড়ে ৩ থেকে ৫ শ’ টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি করে বিক্রি ও পেঁয়াজ কেজি প্রতি ১০ থেকে ১৫ টাকা বৃদ্ধি করে খুঁচরা বিক্রি করায় ক্রেতারা স্থানীয় বাজার মনিটরিং কমিটির কাছে বিষয়টি অবহিত করেন। ২০ মার্চ বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রামকৃষ্ণ বর্মণ এর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা কালে প্রতি চালের বস্তা বেশি দামে বিক্রি করার অপরাধে চাল ব্যবসায়ী আফজাল হোসেনের ৫ হাজার, আবুল হোসেনের ২ হাজার, শাহিনুর মিয়ার ২০ হাজার, আব্দুল হান্নানের ১০ হাজার, , রুহল আমিনের ৫ হাজার, ও খুঁচরা বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি বিক্রি করায় খুচরা পেঁয়াজ ব্যবসায়ী আইনুল হকের ৫ হাজার, লাবীব মিয়ার ২ হাজার ও রুহুল আমিনের ৩ হাজার টাকা করে মোট ৬২ হাজার টাকা ভোক্তা অধিকার আইনে ভ্রাম্যমান আদালতে এ জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত শেষে সাংবাদিকদের এক ব্রিফিংকালে ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রামৃষ্ণ বর্মণ বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে মজুতদার ও খুঁচরা ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে চাল ও কাঁচামালের বাজার উর্দ্ধগতি করায় এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। এ অভিযান উপজেলার সর্বত্র হাট-বাজারে অব্যাহত থাকবে।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!