হরিণাকুণ্ডু উপজেলাতে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান অন্বেশন

এম.টুকু মাহমুদ হরিণাকুণ্ডু থেকেঃ

শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। আলেকিত মানুষ চাই’ স্লোগানে জ্ঞানের আলো ছড়াতে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে কার্যক্রম শুরু করেছে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি। হরিণাকুণ্ডুর ছয়টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শহরের গুরুত্বপুর্ণ স্থানে সপ্তাহে একদিন চলছে এ কার্যক্রম। সকাল ৮টা থেকে শুরু করে রাত ৮টা পর্যন্ত চলে বই দেওয়া নেওয়া ও পড়ার কাজ। প্রতিটি পয়েন্টে দুই ঘন্টা অবস্থান করে ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরির পিকআপভ্যানটি।

ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি সূত্রে জানায়, সাধারণ সদস্য ১০০ টাকা, বিশেষ সদস্য ২০০ টাকা এবং বই রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ১০ টাকা ফি জমা দিয়ে এই ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি থেকে বই সংগ্রহ করতে পারবেন সদস্যরা। সাধরণ ও বিশেষ সদস্যরা বই ফেরত দেওয়ার শর্তে বাড়িতে নিয়েও পড়তে পারবেন। লাইব্রেরি কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিকভাবে উপজেলার সরকারি লালন শাহ কলেজ, সালেহা বেগম মহিলা ডিগ্রী কলেজ, প্রিয়নাথ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শিশুকলি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় সহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে শুরু হয়েছে এই ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরির কার্যক্রম। পরে এর পরিসর আরো বাড়ানো হবে। উপজেলার শিশুকলি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও প্রিয়নাথ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দেখা যায়, ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরির পিকআপভ্যানটি ঘিরে আপন মনে বই পড়ছে বেশকিছু শিক্ষার্থী। কথা হয় শিশুকলি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী আনোয়ার সাদাত উপমের সঙ্গে। সে বলে, এই ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরিতে শিশু কিশোরদের জন্য শিশুতোষসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ বই আছে। এসব বই পড়ে আমরা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি নানা বিষয়ে জ্ঞানার্জন করতে পারবো।

এদিকে শিশুকলি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়ামত আলী জানান, প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি এ লাইব্রেরি থেকে শিক্ষার্থীদের জ্ঞানার্জন বৃদ্ধি পাবে। উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরীর সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শরিফুল ইসলাম বলেন, উপজেলার একমাত্র গণগ্রন্থাগারে শিক্ষার্থীদের আশার সময় ও সুযোগ হয় না।

বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরিতে শিশুতোষ, ইতিহাস, প্রবন্ধ, গল্প, ভ্রমন কাহিনী, নাটক, কবিতাসহ বিশ্বের শ্রেষ্ঠ লেখকের বইয়ের অনুবাদসহ লেখকদের বই রয়েছে। যা পড়ে শিক্ষার্থীদের প্রচুর জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে।

বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন বলেন, একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি জ্ঞানের অন্যান্য শাখায় শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ্বের বিখ্যাত বইগুলোর সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ায় এই ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরির উদ্দেশ্য।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

Archive Calendar

error: Content is protected !!