সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার রায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার রায় আগামীকাল ২৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার। হত্যার মূল পরিকল্পনারকারী হিসেবে অভিযুক্ত জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল ডা. আবদুল কাদের খান ও অন্য আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি চান লিটনের পরিবার ও সুন্দরগঞ্জবাসী।
নিজবাড়িতে আততায়ীর গুলিতে গাইবান্ধা-১ আসনের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন নিহতের প্রায় তিন বছর হতে চলেছে। তবে এখনও তার শূন্যতায় পরিবার ও স্বজনরা। এক সময়ে নেতাকর্মীদের আনাগোনায় মুখর থাকতো লিটনের বাড়িটি। এখন তা জনশূন্য। গত ২০১৬ সালের ৩১শে ডিসেম্বর খুন হন লিটন। এখন ওই বাসার সেখানে দেয়ালে টানানো তার ছবি ছাড়া কিছু নেই। স্বজনদের কাছে এখন তিনি শুধুই স্মৃতি। সুন্দরগঞ্জের নেতারাও চান লিটন হত্যায় জড়িতরা সর্বোচ্চ শাস্তি পাক।
ন্যায় বিচারের আশা করছেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। আর পাবলিক প্রসিকিউটর বলছেন রায়ে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডই হবে।
আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. আবদুল হামিদ প্রমাণের বিভিন্ন কাগজপত্র জাল উল্লেখ করে আশা করছেন আসামিরা খালাস পাবেন। তবে পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) (জেলা ও দায়রা জজ আদালত) অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, ‘যেহেতু সব প্রমাণ হয়েছে এই মামলায় সর্বোচ্চ শাস্তি ফাসিই হবে।’
২০১৭ সালের ৩০শে এপ্রিল আবদুল কাদের খাঁনসহ আটজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। ২০১৮ সালের ৮ই এপ্রিল শুরু হয় সাক্ষ্যগ্রহণ। এ পর্যন্ত আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার বাদী ও নিহতের স্ত্রীসহ ৫৯ জন।
বর্তমানে গাইবান্ধা জেলা কারাগারে আছেন প্রধান আসামি কাদেরসহ পাঁচজন। অভিযুক্তদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং একজন পালিয়ে গেছে ভারতে। চলতি বছরের ১১ই এপ্রিল হত্যার ঘটনায় অস্ত্র মামলায় কাদের খাঁনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

error: Content is protected !!