শ্রীপুরে প্রশাসনের হস্থক্ষেপে ৩টি বাল্য বিয়ে বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার রমজান আলী রুবেলঃ
গাজীপুরের শ্রীপুর প্রশাসনের হস্থক্ষেপে ৯ম শ্রেণী পড়ুয়া তিনটি  স্কুল শিক্ষার্থীর বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। (২৫ অক্টোবর শুক্রবার) দুপুরে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ধনুয়া দক্ষিণ পাড়া গ্রামে,উপজেলার বিধাই পূর্ব পাড়া ও নগরহাওলা গ্রামের ওই শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এ বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দেয় শ্রীপুর থানা পুলিশ।
বাল্য বিবাহের শিকার এক শিক্ষার্থীদের (১৪)। সে স্থানীয় ধনুয়া বড়চালা দাখিল মাদরাসার ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী। তার বাবার নাম শরিফ মিয়ার কন্যা। ও অপর শিক্ষর্থীর (১৫) তার বাবার নাম রফিকুল ইসলাম। সে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী। উপজেলার বিধাই গ্রামের পূর্বপাড়া এলাকার মৃত আব্দুছ সালাম মিয়ার কন্যা (১৫) সহ তিনটি বাল্য বিয়ে বন্ধ করা হয়েছে।
শ্রীপুর মডেল থানার  (এস আই) শফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলার তিনটি গ্রামের আলাদা আলাদা তিনটি বিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। ধনুয়া দক্ষিণ পাড়া এলাকায় ৯ম শ্রেণী পড়ুয়া এক জন, নগরহাওলা গ্রামের এক জন,বিধাই গ্রামের একজনসহ মোট তিনটি স্কুলছাত্রীকে তার পরিবার বিবাহ দিচ্ছে এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাল্য বিবাহের কুফল ও আইন সম্পর্কে পরিবারের লোকজনকে ধারণা দিলে তারা বিয়ে তিনটি বন্ধ করতে একমত হয়। এদিকে নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে মেয়ের ১৮ বছর পূর্ণ হলেই কেবল বিয়ে দেয়া হবে বলে জানান তাদের পরিবারের লোকজন।
পুলিশের হস্থক্ষেপেই কেবল আজ এদের মতো তিনটি মেয়ের বাল্য বিবাহের দুর্ঘটনার হাত থেকে রেহাই পেয়েছে। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বরপক্ষের লোকজন বিয়ে বাড়িতে না আসায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

     More News Of This Category এই বিভাগের আরও খবর

ফেইজবুকে আমরা

error: Content is protected !!